অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে কিভাবে উপার্জন করা যায়!

0
387

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কী?

এটি আমাদের কাছে পাওয়া প্রশ্নগুলির মধ্যে একটি সাধারণ প্রশ্ন।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং হল কোন কম্পানির অনুমোদিত পণ্য অথবা পরিষেবা সমূহের প্রচার-প্রচারণা করে অর্থ বা কমিশন উপার্জন করা। একেক কোম্পানির একেক রকমের আফিলিয়েট কমিশন থাকে, আপনাকে বুঝতে হবে যে কোন কোম্পানির পণ্য আপনার প্রচার করে লাভবান হতে পারবেন, এটা আপনার দক্ষতা এবং আপনার নিজস্ব ইন্টারেস্ট এর উপরে নির্ভর করে।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কীভাবে শুরু করা যায় তার জন্য এখানে 5 টি ধাপ আলোচনা করা হলো: 

কোন পণ্য নিয়ে আপনি কাজ অথবা প্রচার করতে চান সেটা খুঁজে বের করতে হবে, অর্থাৎ আপনার পছন্দের পণ্যটি অথবা সেবাসমূহ খুঁজে বের করা,অবশ্যই দীর্ঘমেয়াদি কাজ করা যায় এমন পণ্য বা সেবা বাছাই করা উত্তম,এবং আরো একটা বিষয় মাথায় রাখা উচিত, যে পন্যটি আপনি বাছাই করলেন সেই পণ্যের মার্কেট চাহিদা কিরকম।

আপনার বাছাইকৃত পণ্যটির অথবা সেবা সমূহের নাম লিখে গুগলে সার্চ করলে কাংখিত অ্যাফিলিয়েট কোম্পানির অথবা ওয়েবসাইটের অ্যাড্রেস খুঁজে পাবেন, পৃথিবীর অনেক বড় বড় অ্যাফিলিয়েট কোম্পানি যারা বিশ্বস্ততার সহিত অনেক বছর ধরে এই সার্ভিস প্রদান করে আসছে তাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য amazon.com ,alibaba.com, ebay.com , আপনি চাইলে এই কোম্পানিগুলোর  যেকোন একটির সাথে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং শুরু করতে পারেন ,এছাড়াও বাংলাদেশের অনেক কোম্পানি বিদ্যমান আছে যারা অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের সার্ভিস প্রদান করে যাচ্ছে , shoppinghat.com ।

বাছাইকৃত আপনার পছন্দের কম্পানি ওয়েবসাইটে গিয়ে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে,রেজিস্ট্রেশন করা খুবই সহজ উপায় তবে অবশ্যই নাম, ঠিকানা,মোবাইল নাম্বার ইত্যাদি সঠিকভাবে পূরণ করবেন,কারণ ছোট্ট একটা ভুলের কারণে আপনার অ্যাফিলিয়েট একাউন্ট অনুমোদন না-ও হতে পারে।

আপনার রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া সফলভাবে সম্পাদিত হলে আপনার অনুমোদিত একাউন্ট থেকে একটি এফিলিয়েট লিংক পাবেন,এই লিংকটি মূলত আপনাকে সঠিক নিয়ম মেনে প্রচার প্রচারণা করতে হবে।

কোন ব্যক্তি যদি আপনার এই লিঙ্কে ক্লিক করে কোন পণ্য অথবা সেবা গ্রহণ করেন তাহলে আপনি নির্দিষ্ট আফিলিয়েট কমিশন পেয়ে যাবেন।

আরো বিস্তারিত জানার জন্য নিচের ভিডিওটি সম্পূর্ণ দেখুন: 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here