গুগলে নিজের কাঙ্কিত জিনিস খুঁজে পাওয়ার কিছু সহজ উপায়

0
233

গুগল আমাদের সবার কাছে অতি পরিচিত একটা নাম । গুগলে পাওয়া যায়না এমন তথ্য খুবই কম আছে ,আর এই ডিজিটাল যুগেতো চিন্তাই করা যায় না । আমরা যারা ইন্টারনেট জগতে কাজ করি তাদের জন্য গুলল হল সব চাইতে কাছের বন্ধু । কোন তথ্য অজানা থাকলেই গুগল আমাদের উপায় ,কিন্তু আমরা যে তথ্য জানতে চাচ্ছি তা কতটা সঠিক এবং খুব তারাতারি খুজে বের করতে পারতেছি সেটা একটা বড় বেপার । আমরা অনেকেই আছি কাঙ্ক্ষিত তথ্য সহজে খুজে না পেয়ে হতাশ হয়ে হয়ত খুঁজাই বন্ধ করে গুগল থেকে বের হয়ে যাই । চাইলেই কিন্তু বাঁচান যায় এই প্রয়োজনীয় সময় গুলি কিছু সাধারণ কিন্তু ইফেক্টিভ ট্রিক্স এপ্লাই করে গুগোল এ সার্চ করার সময়।

তো চলুন, শিখে নেই কিছু উপায় গুগলে নিজের কাঙ্কিত জিনিস খুঁজে পাওয়ার।

১। ব্যাবহার করুন কটেশন মার্কঃ
কটেশন মার্ক টা খুঁজে পেতে সাহায্য করবে আপনার স্পেসিফিক কনটেন্ট। গুগোল এর কিছু খোঁজার এলগরিদম টা যদি জেনে যান, তাহলে কোন কিছু খুঁজতে সুবিধে হবে। কারণ আমরা যদি লিখি I love my country. তাহলে গুগোল প্রত্যেকটি শব্দ কে আলাদা খুঁজে বের করে, প্রত্যেকটা শব্দ কে আরেকটি শব্দের সাথে মিলিয়ে রেজাল্ট খুঁজে বার করে আপনাকে দেখায়। তাতে লিস্ট হয়ে যায় অনেক বড়। আর তাই যদি আপনি জানেন আপনি আসলে কি খুঁজছেন, সেটা কোটেশন মার্ক এর মধ্যে দিয়ে দিলে ওই পুরো শব্দ টা এক খানে গুগোল খুঁজে আপনাকে দেখাবে। যেমন ” I love my country “.

২। – হাইফেন ইউস করুন কিছু বাদ দিতেঃ
কিছু লিখে যদি আপনি মনে করেন এমন কোন জায়গা যেখান থেকে আপনি চান না গুগোল কিছু খুঁজে বের করুক তাহলে সার্চ কনটেন্ট এর শেষে হাইফেন বা মাইনাস – এবং একি ভাবে প্লাস + ইউস করে শুধু সেই জায়গা থেকেই খুজবে এমন বলে দিতে পারেন গুগোল কে। যেমন যদি আমি গুগোল করি এমন কোন ওয়েবসাইট এর জন্য যেখান থেকে আমি ওয়েব ডিজাইন শিখতে পারবো, কিন্তু আমি চাইছিনা সেখানে ইউটিউব এর কোন ভিডিও আসুক। তাহলে আমরা লিখব how to earn money online -youtube আর পক্ষান্তরে যদি আমরা চাই শুধু ইউটিউব এর ভিডিও ই দেখাবে তাহলে লিখার শেষে +youtube দিয়ে দেব।

3. ব্যাবহার করুন কোলনঃ
যদি এমন টা চাই, আমার কনটেন্ট টা শুধু একটা ওয়েবসাইট থেকে খুঁজে বের করে দেবে। যেমন কোন আর্টিকেল বা কনটেন্ট যা আমি চাই শুধু ফেসবুক থেকে খুঁজে এনে দেবে। যদি হউ কোন প্রডাক্ট তাহলে আমি চাই, ফেসবুকে সেই প্রডাক্ট এর যত পোস্ট আছে সেটা দেখবো যা দেখে আমি আমার নিজের ব্র্যান্ডিং করার আইডিয়া পেতে পারি তাহলে সার্চ লিখার শেষে ঃ কোলন লিখে ওয়েবসাইট এর আড্রেস তা লিখে দিব। যেমন Weight loss :alibaba.com, podcast :shikbokoi.com তাহলে উক্ত টপিক টি শুধু সেই ওয়েবসাইট থেকেই খুঁজে বের করে দেবে আপনাকে গুগোল। ভুলেউ পা দেবে না অন্য কথাউ।

৪। * স্টার খুঁজে দেবে গুপ্তধনঃ
হাহা, না সোনা, মানিক হিরে না, তবে এটা হতে পারে এমন একটা গুপ্ত ধন যা চাচ্ছেন খুঁজতে কিন্তু জানেন না কি লিখে খুজবেন। বুঝেন নি তো? ধরুন এমন একটা টপিক হতে পারে গানের লিরিক। সেটার কিছু অংশ আপনার মনে আছে, বাকি টা নেই। তাহলে মনে না থাকা অংশ টুকুতে সম্ভাব্য কিছু একটা লিখে দুইটা স্টার এর মধ্যে রেখে দিন। গুগোল অটমেটিকালি বুঝে নেবে স্টার এর মাঝে যে কোন শব্দ হতে পারে আর সে তেমন ভাবেই খুজত থাকবে আপনার কাঙ্ক্ষিত উপকরণ টি। যেমন আমরা যদি রিহানার একটা গান We found love in a beautiful place খুঁজতে চাই কিন্তু এর কিছু অংশ ভুলে যাই, তাহলে আমরা লিখতে পারি we found love in a natural place এখানে স্টার দেয়া অংশে গুগোল বুঝে নেবে আপনি শিওর না এই পার্ট টুকুর ব্যাপারে, আর সে খুঁজে দেবে সম্ভাব্য সব কিছু।

৫। খুঁজে বেরকরুন সিমিলার সাইটঃ
প্রত্যেকটা সাইট এর একটা টাইপ থাকে। ফেসবুক যেমন সোশ্যাল মিডিয়া, ডিজিটালস্কিলস বিডি যেমন ব্লগ, আইটি টেকনোলজি বিষয়ক ইত্যাদি। তো আমরা যদি একটা সাইট এর মতো সিমিলার অন্য সাইট খুঁজে পেতে চাই তাহলে রিলেটেড লিখতে হবে আর পড়ে কলন দিয়ে লিখতে হবে জেটার মতো খুজছি। যেমন related:shikbokoi.com তাহলে ঢাকা কাস্ট এর মতো সিমিলার সাইট গুলি আমরা গুগলে খুঁজে পাবো।

৬। সহায়তা নিন অংক করতেঃ
আপনি চাইলেই ছোট অংক করিয়ে নিতে পারেন গুগোল কে দিয়ে। যেমন 4+3 লিখে সার্চ করলে এর ফলাফল পেয়ে যাবেন। তেমনি কোন বিজ্ঞানির থিওরী, কিংবা কোন ইকুয়েশান, অন্য কোন দেশের সময়, কারেন্সি, কারেন্সি কনভার্সন যেমন ডলার থেকে বাংলাদেশি টাকায় রুপান্তর ইত্যাদি কাজ গুলি খুব সহজে পেয়ে যাবেন গুগোল সার্চ করেই।

৭। খুঁজে ফেলুন একাধিক শব্দ একসাথেঃ
অনেক সময় আমাদের একাধিক শব্দ খুঁজে পেতে হয় বা একাধিক ফ্রেজ খোঁজার দরকার পড়ে। সেটা করতে আমরা পারি অর ইউস করার মাধ্যমে। সার্চ করার শব্দ গুলি ডাবল কুওট এর মধ্যে রেখে মাঝে OR লিখে সহজেই পেয়ে যেতে পারি একাধিক ফ্রেজ বা শব্দের সার্চ রেজাল্ট যেমন “how to learn freelancing” OR “freelancing tips and tricks”।

৮। বার করুন সংখ্যার রেঞ্জঃ
আমরা অনেক সময় সমিকরন বা স্ট্যাটিস্টিক খুঁজে পেতে চাই। এর এটা খুঁজে পেতে আমরা ইউস করতে পারি ডাবল ডট। .. এইটা।
আর এটা আমরা ব্যাবহার করতে পারি দুই ভাবে। প্রথমত, কিছু লিখে ডাবল ডট দিয়ে একটি সংখ্যা যদি ব্যাবহার করি, মানে যদি লিখি Asia cup ..2018 তাহলে গুগোল বুঝবে আমরা শুধু এই শাল বা নাম্বার এর আওতায় তথ্য গুলি খুঁজে পেতে চাইছি। এর আগেউ না পরেউ না। তাহলে সে শুধু ২০১৮ এর তথ্য গুলি খুঁজে বার করবে। আর যদি লিখি Asia cup 1994..2918 তার মানে সে ১৯৯৪ সাল থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত ফিফা তে যা যা হয়েছে (কিংবা আপনি যদি লিখে দেন আরও স্পেসিফিক ভাবে) তাহলে এই রেঞ্জ এর মধ্যেকার জিনিস গুলি আপনাকে খুঁজে এনে দেবে গুগুল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here